যুক্তরাষ্ট্রের আইন প্রণেতাদের সাথে জেলেন্সকির নির্ধারিত বৈঠক বাতিল

যুক্তরাষ্ট্রের সেনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতা চাক শুমার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “ জেলেন্সকি আমাদের ব্রিফিং ‘এ আসতে পারেননি- শেষ মূহুর্তে কিছু একটা হয়েছিল”

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি যুক্তরাষ্ট্রের সেনেট সদস্যদের সাথে তাঁর বৈঠক বাতিল করেছেন। অনুমান করা গিয়েছিল যে রাশিয়ার চলমান আক্রমণের কারণে তিনি অব্যাহত সামরিক সহায়তা চাইবেন। সেনেটে সংখ্যাগরিষ্ঠ নেতা চাক শুমার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “ জেলেন্সকি আমাদের ব্রিফিং ‘এ আসতে পারেননি- শেষ মূহুর্তে কিছু একটা হয়েছিল”।

শুমার বলেন জেলেন্সকিকে এই গোপন ব্রিফিং এ ভিডিওর মাধ্যমে বক্তব্য রাখতে বলা হয়েছিল যাতে করে ঐ বৈঠকে যারা উপস্থিত থাকতেন তারা “ তাঁর কাছ থেকে সরাসরি শুনতে পারতেন যে ঠিক কোন বিষয়টা ঝুঁকির মুখে রয়েছে এবং আইন প্রণেতাদের ইউক্রেনে নতুন সহায়তা বাবদ বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার প্রদানের বিষয়ে ভোট দিতে সাহায্য করা হতো।

ব্যবস্থাপনা ও বাজেট দপ্তরের পরিচালক শালান্দা ইয়াং সোমবার কংগ্রেসের নেতাদের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে সতর্ক করে দেন যে এই বছরের শেষ নাগাদ, ইউক্রেনকে অস্ত্র শস্ত্র ও সহায়তা পাঠানোর মতো অর্থ যুক্তরাষ্ট্রের থাকবে না। ইয়াং ইউক্রেন সম্পর্কে বলেন তারা “ লড়াই চালিয়ে যেতে পারবে না”। তিনি আরও বলেন যে ইউক্রেনর অর্থনীতিকে চাঙ্গা করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের কাছে কোন অর্থ নেই।

এদিকে ভয়েস অফ আমেরিকা জানায়,যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জেইক সালিভান সংবাদদাতাদের বলেন, “ আমাদের অর্থের ঘাটতি পড়ছে এবং সময়ও প্রায় শেষ হয়ে আসছে। ইউক্রেনকে সহায়তা প্রদানের বিরুদ্ধে ভোট আসলে পুতিনের কৌশলগত অবস্থানকে আরও উন্নত করার পক্ষেই ভোট”।

যুদ্ধক্ষেত্রে ইউক্রেনের এই অর্ধ-বৎসরব্যাপী পাল্টা আক্রমণ রাশিয়ার শক্ত উপস্থিতে প্রধানত অচল হয়ে রয়েছে । দেশটির পূর্বাঞ্চলে খুব সীমিত অঞ্চলই উদ্ধার করতে পেরেছে তারা। অক্টোবর মাসে বাইডেন প্রশাসন ইউক্রেন, ইসরাইল ও যুক্তরাষ্ট্রের সীমানা সুরক্ষার জন্য কংগ্রসকে প্রায় ১০,৬০০ কোটি ডলার অনুমোদন করতে বলেছিল।

কিন্তু ইউক্রেনের জন্য অর্থায়ন রাজনৈতিক ভাবে বিতর্কের বিষয় হয়ে উঠেছে । সামান্য সংখ্যারিষ্ঠ রিপাবলিকান নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদে কিছু ডানপন্থি বিধায়ক এই সহায়তার বিরোধিতা করছেন। তাঁরা বলছেন এই সহায়তা যুক্তরাষ্ট্রের স্বার্থের অনুকুল নয়। তবে হোয়াইট হাউস প্রকাশিত এক চিঠিতে ইয়াং বলেন যে ইউক্রেনকে অর্থায়ন ও অস্ত্র প্রদান বন্ধ করলে তা যুদ্ধক্ষেত্রে রাশিয়ার জন্য সুবিধাজনক হবে।

তিনি লেখেন, “ আমি পরিস্কার করে বলতে চাই: এ বছর শেষ হবার আগে কংগ্রেস কোন ব্যবস্থা না নিলে ইউক্রেনকে আরও অস্ত্র এবং যন্ত্রপাতি প্রদান করার জন্য কিংবা যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর মওজুদ থেকে কোন যন্ত্রপাতি দেয়ার জন্য আমাদের কোন সঙ্গতি থাকবে না”।

কবির আহমেদ/ইবিটাইমস 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »