গণটিকার কর্মসূচি সরকারের আরেকটি তামাশা : মির্জা ফখরুল

ঢাকা: গণটিকার কর্মসূচি সরকারের আরেকটি তামাশা বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

সোমবার নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক মিলাদ ও দোয়া মাহফিলে তিনি এমন মন্তব্য করেন। দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বিএনপি।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, এত বড় একটা বৈশ্বিক মহামারি সরকার সঠিকভাবে মোকাবিলা করতে ব্যর্থ হয়েছে এবং সেই টিকা সংগ্রহ করতে গিয়ে দুর্নীতি করেছে। তারা গণটিকা প্রদানের নামে আরেকটি তামাশা জনগণের সামনে উপস্থিত করেছে। যার ফলে সমগ্র দেশে করোনাভাইরাসের সংখ্যা আরও বৃদ্ধি পেয়েছে।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, অপরিকল্পিত লকডাউন দিয়ে প্রকৃতপক্ষে তারা বিরোধী দলের ওপরে ক্র্যাকডাউন করেছে। তিনি অভিযোগ করেন, তারা কোনো সভা-সমিতি, কোনো জমায়েত করতে না দিয়ে নিজেরা ঠিকই সব করে যাচ্ছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, এই সরকার ইতিহাসকে বিকৃত করার জন্যে এবং জনগণের দৃষ্টিকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার জন্যে স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের বিরুদ্ধে অত্যন্ত অপমানজনক কথাবার্তা বলছে। এই কথাগুলো বলার উদ্দেশ্য হচ্ছে ইতিহাসকে বিকৃত করা এবং জনগণকে বিভ্রান্ত করা।

বিএনপির মহাসচিব আরও বলেন, আমরা খুব ভালো করেই জানি যখন ১৫ আগস্টের হত্যাকাণ্ড ঘটে সেই হত্যাকাণ্ডের পরে কারা ক্ষমতায় এসেছিল। ক্ষমতায় এসেছিল আওয়ামী লীগ, তাদেরই নেতা খোন্দকার মোশতাক আহমেদ সেদিন ক্ষমতাসীন হয়েছিলেন এবং আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দকে নিয়েই নতুন মন্ত্রিসভা গঠন করা হয়েছিল শেখ মুজিবুর রহমানের রক্তের ওপর দিয়ে হেটে গিয়ে, এই কথা আমরা ভুলে যাইনি।

বিএনপির কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক শহিদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানির সঞ্চালনায় দোয়া মাহফিলে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমান উল্লাহ আমান ও আবদুস সালাম বক্তব্য দেন।

ঢাকা/ইবিটাইমস/আরএন

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »