স্পিডবোট দুর্ঘটনা: নিহত দুই জনের বাড়ি ভান্ডারিয়ায়

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট; পিরোজপুর: মাদারীপুরের শিবচর উপজেলার বাংলাবাজার-শিমুলিয়া নৌরুটের কাঁঠালবাড়ী ঘাটসংলগ্ন এলাকায় স্পিডবোট দুর্ঘটনায় নিহতদের মধ্যে দুই জনের বাড়ি পিরোজপুরের ভান্ডারিয়া উপজেলায়।

মঙ্গলবার (০৪ মে) তাদের দাফনকার্য সম্পাদন করছেন বলে জানিয়েছেন স্বজনরা। নিহতরা হলেন -জনি অধিকারী (২৬) ও মানজুরুল ইসলাম
বাপ্পী (২৩)। নিহত জনি অধিকারী উপজেলার পশ্চিম পশারীবুনিয়া গ্রামের রঞ্জন অধিকারীর ছেলে। আর মানঞ্জুরুল ইসলাম বাপ্পী উপজেলার চরখালী গ্রামের ওহিদুল খানের ছেলে।

পশারীবুনিয়া গ্রামের স্বপন হালদার জানান, নিহত জনি অধিকারী ঢাকায় একটি কেজি স্কুলে (ইংলিশ মিডিয়াম) সিকিউরিটি গার্ডের চাকুরী করতেন। বড় ভাইয়ের বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে বাড়ি আসতে গিয়ে স্পিডবোট পারাপারের সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। জনির মরদেহ গ্রামের বাড়ি
নিয়ে আসার পরে মঙ্গলবার বিকালে ধর্মীয় রীতি অনুযায়ী পারিবারিক শ্মশানে সমাহিত করা হবে।

অপরদিকে মানজুরুল ইসলাম বাপ্পী কে মঙ্গলবার (০৪ মে) উপজেলার নদমূলা শিয়ালকাঠী ইউনিয়নের চরখালী পারিবারি কবর স্থানে সকাল সাড়ে দশটায় দাফন করা হয়। বাপ্পী বরিশালের সরকারি জাগুয়াস্কুল এন্ড কলেজে একাদশ শ্রেণির ছাত্র। পরিবারে তিনভাই বোনের মধ্যে বাপ্পী সবার ছোট ছিল।

নিহত বাপ্পীর পিতা অবসর প্রাপ্ত ল্যান্সকর্পোরাল ওহিদুল খান জানান, গত ৩ এপ্রিল ঢাকা ফুফাতো বোনের বাসায় বেড়াতে যায়। বাড়ি আসার পথে স্পিডবোট পারাপারের সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় নিহতদের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম।

এইচ এম লাহেল মাহমুদ /ইবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »