অস্ট্রিয়ার Salzburg রাজ্যে ভারতীয় মিউট্যান্ট ভাইরাসের উপস্থিতি

একজন ভারতীয় মহিলা ছুটি কাটিয়ে ফিরে আসলে তার শরীরে B.1.617 ভাইরাস আছে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে

ইউরোপ ডেস্কঃ অস্ট্রিয়ার জনপ্রিয় অনলাইন পত্রিকা Oe24 জানিয়েছেন অস্ট্রিয়ার পশ্চিমের রাজ্য সালজবুর্গে একজন ভারতীয় বংশোদ্ভূত মহিলার শরীরে বর্তমানে ভারতে ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়া মিউট্যান্ট ভাইরাস B.1.617 থাকতে পারে বলে সন্দেহ করা হচ্ছে।

পত্রিকাটি জানায়, সালজবুর্গ রাজ্য প্রশাসনের মুখপাত্র Franz Wieser অস্ট্রিয়ান সংবাদ সংস্থা এপিএকে জানিয়েছেন যে,রাজ্যের স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষ একজন ভারত ফেরত রোগীর দেহে ভারতীয় করোনার রূপান্তর ভাইরাস B.1.617 এর উপস্থিতি আছে বলে সন্দেহ করছেন। তার নমুনা পিসিআর পরীক্ষার পরে স্ক্রিনিং এটি সূচিত করে তবে সিকোয়েন্সিংয়ের মাধ্যমে নিশ্চিতকরণ এখনও মুলতুবি রয়েছে।

আক্রান্ত মহিলা Salzburg রাজ্যের ফ্ল্যাচগৌতে বসবাসরত এক ভারতীয় মহিলা। তিনি গত সপ্তাহে ভারতে ছুটি কাটিয়ে সালজবুর্গে ফিরে এসেছিলেন।

মুখপাত্রের মতে গত সপ্তাহের মাঝামাঝি সময়ে মহিলাটি ভারত থেকে ফিরে এসেছিলেন। এই সপ্তাহের মঙ্গলবার, তিনি কর্মক্ষেত্রে একটি দ্রুত করোনার পরীক্ষা করেছিলেন, যা ইতিবাচক হয়েছিল।  পরবর্তী পিসিআর পরীক্ষা সংক্রমণের বিষয়টি নিশ্চিত করে।  “স্ক্রিনিংয়ের সময়, ভারতীয় মিউটেশনটির সন্দেহ প্রকাশ পেয়েছিল,” মুখপাত্র বলেছেন।  পরীক্ষার সময় এই ভারতীয় মহিলার কোনও লক্ষণ ছিল না। এর মধ্যে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন কিনা তা জানা যায়নি।

সালজবুর্গ স্বাস্থ্য প্রশাসন জানিয়েছেন,মহিলা তার পরিবার থেকে আলাদা আইসোলেশনে রাখা হয়েছে।ধারণা করা হচ্ছে তার পরিবারের আরও অনেকেই আক্রান্ত হয়ে থাকতে পারেন।

সালজবুর্গ রাজ্যের মেডিকেল ডিরেক্টর Petra Juhasz বলেন, সালজবুর্গে বর্তমানে সমস্ত ইতিবাচক(পজিটিভ) নমুনাগুলি আরও বিস্তারিত পরীক্ষার জন্য কেন্দ্রীয় ল্যাবে পাঠানো হয় মিউট্যান্ট ভাইরাস শনাক্তের জন্য।

Petra Juhasz আরও জানান আক্রান্ত ভারতীয় মহিলা সোমবার ২২ শে এপ্রিল ২০২১ সকাল ৭:৪৫ টা থেকে সকাল ৮.২০ মিনিট পর্যন্ত থেকে সালজবুর্গের মিউনিখ বুন্ডেসস্ট্রাসের লিডল শাখায থেকে শপিং করছিলেন।  যে সমস্ত লোকেরা এই সময়ে সেখানে ছিলেন তাদের তাই স্বাস্থ্য পরামর্শ পরিষেবা 1450 বা স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের সাথে 0662 8180 5981 এ সরাসরি যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

ভারতীয় ভাইরাস রূপটি B.1.617 হ’ল গ্রেট ব্রিটেন এবং দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে আসা রূপান্তরগুলির একটি বিপজ্জনক সংমিশ্রণ। এই রূপটি পূর্ববর্তী মিউটেশনের চেয়ে মারাত্মক কিনা তা এখনও স্পষ্ট নয়। তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (WHO) এর মতে, প্রাথমিক সমীক্ষার ফলাফল থেকে জানা যায় যে,  ভারতে অন্যান্য করোনার বৈকল্পিকগুলির তুলনায়  B.1.617 অতি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে যা এখন সমগ্র ভারতে করোনার সুনামির আকার ধারন করেছে।

আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন ২,১৩১ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ২৬  জন।

রাজধানী ভিয়েনায় আজ নতুন করে সংক্রমিত হয়েছেন ৫০১ জন। অন্যান্য রাজ্যের মধ্যে Steiermark রাজ্যে ৩৮৩ জন,OÖ রাজ্যে ৩৫৬ জন, NÖ রাজ্যে ২৫৮ জন,Tirol রাজ্যে ২০০ জন,Vorarlberg রাজ্যে ১৫৪ জন,Kärnten রাজ্যে ১৩৭ জন,Salzburg রাজ্যে ৯৭ জন এবং Burgenland রাজ্যে ৪৫ জন নতুন করে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন।

অস্ট্রিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী আজ সমগ্র অস্ট্রিয়ায় করোনার ভ্যাকসিন প্রদান করা হয়েছে ৮০ হাজার ৮২ ডোজ এবং এই পর্যন্ত ভ্যাকসিন প্রদান করা হয়েছে মোট ৩০ লক্ষ ৫৪ হাজার ২৬১ ডোজ।

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬,১৮,৮৭০ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ১০,২০৫ জন।করোনা থেকে এই পর্যন্ত আরোগ্য লাভ করেছেন মোট ৫,৮৪,৭৭৭ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ২৩,৮৮৮ জন। এর মধ্যে ক্রিটিক্যাল অবস্থার মধ্যে আইসিইউতে আছেন ৫০১ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ১,৬৭৩ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

কবির আহমেদ /ইবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »