অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনার লকডাউন ২ মে শেষ

ভিয়েনায় ৩ মে থেকে ব্যবসা-বাণিজ্য,দোকান-পাট ও চুল কাটার সেলুন খুলছে! হোটেল এবং রেস্টুরেন্ট খুলবে ১৯ মে

ইউরোপ ডেস্কঃ অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনা রাজ্য তার লকডাউন শেষ করার কথা জানিয়েছেন। আজ মঙ্গলবার ভিয়েনার সিটি হলে এক সাংবাদিক সম্মেলনে একথা জানান, ভিয়েনার সিটি মেয়র ও রাজ্য গভর্নর মিখাইল লুডভিগ(SPÖ)। এর ফলে আগামী ৩ মে সোমবার থেকে ভিয়েনার সব ধরনের দোকানপাট, ব্যবসা- বাণিজ্য এবং হেয়ার ড্রেসার সহ সকল প্রকার দেহ-আলিঙ্গন যেমন,থেরাপি,ম্যাসেজ ইত্যাদি খুলছে। তবে আবাসিক হোটেল ও রেস্টুরেন্ট এখনও খুলছে না।হোটেল-রেস্টুরেন্ট খুলবে ফেডারেল সরকার ঘোষিত ১৯ মে অন্যান্য রাজ্যের সাথে।

ভিয়েনার মেয়র মিখাইল লুডভিগ বলেন,আজ ভিয়েনার সংক্রমণ রোগ বিশেষজ্ঞ সহ রাজ্যের নীতিনির্ধারকদের সাথে এক বৈঠকের পর সকলের সম্মতিক্রমে আমি ভিয়েনার চলমান লকডাউনটি ২ মে শেষ ঘোষণা করছি। আগামী ৩ মে থেকে ব্যবসা-বাণিজ্য,দোকান পাট,চিড়িয়াখানার,যাদুঘর এবং বিনোদন সুবিধাগুলিও খোলার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তিনি অবশ্য জোর দিয়ে বলেন,এই সমস্ত প্রতিষ্ঠানে অবশ্যই এফএফপি২ মাস্ক ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে চলতে হবে। তবে বাহিরে খোলা জায়গায় মাস্ক না পড়লেও চলবে। তিনি আরও জানান, ভিয়েনায় এখনও হোটেল-রেস্টুরেন্ট বন্ধ থাকবে।

ভিয়েনা সহ অস্ট্রিয়ার পূর্বাঞ্চলের রাজ্য লোয়ার অস্ট্রিয়া(NÖ) ও বুর্গেনল্যান্ড রাজ্যে করোনার দ্বিতীয় তরঙ্গে সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়লে এই তিন রাজ্যে প্রথমে এপ্রিলের ১ তারিখ থেকে প্রথমে ১ সপ্তাহের জন্য লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছিল। তারপর লকডাউন ১৮ এপ্রিল পর্যন্ত বর্ধিত করা হয়। তারপর ১৮ এপ্রিলের পর বুর্গেনল্যান্ড রাজ্য তার লকডাউন আর বর্ধিত করেনি। তবে ভিয়েনা ও লোয়ার অস্ট্রিয়া তাদের লকডাউনটি ২ মে পর্যন্ত বর্ধিত করেছিল। লোয়ার অস্ট্রিয়া গত শুক্রবার লকডাউনটি আর বর্ধিত করবে না বলে জানিয়েছে।

ভিয়েনায় লকডাউনটি আর বর্ধিত না করার সিদ্ধান্তকে বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান স্বাগত জানিয়েছেন। তাছাড়াও অনেক সংক্রমণ রোগ বিশেষজ্ঞ জানিয়েছেন যে,এখন করোনার প্রথম লকডাউনের মত আর তেমন কার্যকর হয় না। অর্থাৎ এখন লোকজন আর লকডাউন পছন্দ করছে না।

তারা আরও বলেন,শুধুমাত্র লকডাউন দিয়ে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব নয়। মাস্ক, সামাজিক দূরত্ব এবং সর্বোপরি জনগণকে সচেতন করতে পারলে লকডাউন ছাড়াও করোনার সংক্রমণের বিস্তার নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা।

আজকের ভিয়েনা সিটি হলের এই সাংবাদিক সম্মেলন ভিয়েনার ডেপুটি মেয়র ক্রিস্টোফ ভিদারকেহর(NEOS) তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে বলেন,তিনি অনেকটাই নিশ্চিত ছিলেন যে,ভিয়েনা লকডাউন থেকে বেড়িয়ে আসছে পারবে। তিনি আরও বলেন, আমরা অনেক আনন্দিত এই কারনে যে, ভিয়েনার স্কুলগুলি ইতিমধ্যে পুনরায় খুলে দিতে পেরেছি।ভিয়েনার ডেপুটি মেয়র রাজ্যের শিক্ষা বিষয়ক কাউন্সিলেরও দায়িত্ব পালন করছেন।

তিনি তার বক্তব্যে প্রাসঙ্গিক সুরক্ষা ধারণাগুলি তুলে ধরেন এবং চলমান পাইলট প্রকল্পের কথাও উল্লেখ করেছেন, যা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে পিসিআর গারগল পরীক্ষা কীভাবে যৌক্তিকভাবে করা যেতে পারে সে সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহ করছে।  “স্কুলগুলি সমাজের অন্যান্য ক্ষেত্রগুলির জন্য ভূমিকা মডেল হতে পারে”।

ভিয়েনায় এই পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১ লক্ষ ৩২ হাজার ২৯৬ জন এবং এই পর্যন্ত মোট মৃত্যুবরণ করেছেন ২,১৬৩ জন। ভিয়েনায় করোনার থেকে এই পর্যন্ত আরোগ্য লাভ করেছেন মোট ১ লক্ষ ২৫ হাজার ৪৯৪ জন। ভিয়েনায় বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৪,৬৩৯ জন। বর্তমানে রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতালে আইসিইউ রোগীর সংখ্যা ১৮৬ জন এবং করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ৬২৯ জন।

আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন ১,৬২৫ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ২৮ জন।

রাজধানী ভিয়েনায় আজ নুতন করে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন ১৭৬ জন। অন্যান্য রাজ্যের মধ্যে OÖ রাজ্যে ৩০৩ জন,Steiermark রাজ্যে ২৭৯ জন,Salzburg রাজ্যে ২৩২ জন,Tirol রাজ্যে ২০৪ জন, NÖ রাজ্যে ১৬৫ জন,Vorarlberg রাজ্যে ১১২ জন,Kärnten রাজ্যে ১১১ জন এবং Burgenland রাজ্যে ৪৩ জন নতুন করে করোনায় সংক্রমিত শনাক্ত হয়েছেন।

অস্ট্রিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী আজ সমগ্র অস্ট্রিয়ায় করোনার ভ্যাকসিন প্রদান করা হয়েছে ৩৫,৭৭৬ ডোজ। অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত ভ্যাকসিন প্রদান সম্পন্ন করা হয়েছে ২৮,৬৩,৩৮৯ ডোজ।

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৬,১২,১৭০ জন এবং এই পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছেন মোট ১০,১২৬ জন। করোনার থেকে এই পর্যন্ত আরোগ্য লাভ করেছেন মোট ৫,৭৭,৯৭৭ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ২৪,০৬৭ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে আছেন ৫২০ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ১,৮৯৭ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

কবির আহমেদ/ ইবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »