ভোলা সদর হাসপাতালে বিশুদ্ধ পানির সংকট, ভোগান্তিতে রোগী ও স্বজনরা

ভোলা প্রতিনিধিঃ ভোলার ২২ লাখ মানুষের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিতে ২৫০ শয্যার ভোলা সদর হাসপাতালে বিশুদ্ধ খাবার পানির সংকট দেখা দিয়েছে। হাসপাতালের বাইরে থেকে পানি এনে রোগী ও স্বজনদের পান করতে হচ্ছে। এতে করে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন তারা। ২৫০ শয্যার ভোলা সদর হাসপাতালের তিনটি টিউবওয়েলের দুটি টিউবওয়েল বিকল হওয়ায় পানি সংকট দেখা দিয়েছে। এতে হাসপাতালের ভর্তি প্রায় চার শতাধিক রোগীর বিশুদ্ধ পানির চাহিদা মেটাতে হিমশিম খাচ্ছেন তাদের স্বজনরা। বাধ্য হয়েই হাসপাতালের বাইরে গিয়ে অনেক দূর থেকে পানি আনতে হচ্ছে তাদের। বিশুদ্ধ পানি সংকটে কারণে রাতের বেলা অনেক রোগীকে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, ভোলা সদর হাসপাতালের ভিতরে পুরুষ সার্জারি ওয়ার্ডের সামনে থাকা টিউবওয়েল এর পাইব ছাড়া কিছুই নেই। একই রকম মেডিসিন ওয়ার্ডের সামনে থাকা টিউবওয়েলটি বিকল অবস্থায় আছে। অপরদিকে হাসপাতালের নতুন ভাবনের সামনে যে বাকি একটি টিউবওয়েল আছে তাও প্রায় নষ্ট বললেই চলে। হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা নিতে আশা রোগীর স্বজনদের প্রায় বাধ্য হয়ে দোকান থেকে পানি কিনে খেতে হচ্ছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, প্রতিদিন সদর হাসপাতালে প্রায় ২-৩ শতাধিক রোগী ভর্তি থাকেন। আর প্রায় চার শতাধিক রোগী আউটডোরে চিকিৎসা নেন। হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়া রোগী ও স্বজনদের বিশুদ্ধ খাবর পানির চাহিদা মেটাতে হাসপাতালে ছিলো তিনটি টিউবওয়েল যাট মধ্যে দুটি টিউবওয়েল বিকল হয়ে পড়ে আছে।

বাংলাবাজার থেকে চিকিৎসা নিতে আসা মোঃ মাইনুদ্দিন বলেন, হাসপাতালে ভিতরে খাবার পানির কোনো ব্যবস্থা নেই। বাইরে দূরে একটি টিউবওয়েল আছে তাও নষ্ট ২ লিটার একটা বোতল ভরতে আধাঘন্টা সময় লাগে।

ভেলুমিয়া থেকে ডায়রিয়া আক্রান্ত মেয়ে নিয়ে আসা ফয়জুল নেছা বলেন, মেয়েকে নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছি। রাতে খাবার পানির প্রয়োজন থাকায় এবং হাসপাতালের ভিতরে টিউবওয়েল নষ্ট থাকায় পানি সংগ্রহ করতে পারিনি। ভোর বেলা বাসায় ফোন দিলে বাসা থেকে বোতলে করে পানি নিয়ে আসে।

এদিকে ভোলা জেলা সচেতন নাগরিক ফোরাম সদস্য সচিব মো: বাহাউদ্দিন জানান, সদর হাসপাতালে খাবার পানির কোন ব্যবস্থা নেই। যা একটা আছে তা অকেজো। সদর হাসপাতালে অতি দ্রুত বিশুদ্ধ খাবার পানির জন্য পর্যাপ্ত টিউবওয়েল স্থাপন প্রয়োজন। তা না হলে প্রতিদিন যে হারে ডায়রিয়াসহ অন্যান রোগীরা হাসপাতালে আসছে তারা বিশুদ্ধ খাবর পানির সংকটে বড় ধরনের রোগে আক্রান্ত হবে। ভোলা সদর হাসপাতালে বিশুদ্ধ খাবার পানির সংকটের বিষয়টি নিশ্চিত করে ভোলা ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ মোঃ সিরাজ উদ্দিন জানান, আমি পানি সমস্যার বিষয়টি সম্পর্কে অবগত হয়েছি। তবে হাসপাতালে আমাদের নিজস্ব সাপ্লাইর পানি আছে। ধোঁয়া মোছা সহ অন্যন্য কাজ গুলো আমাদের সাপ্লাইর পানি ব্যবহার করা হয়। জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর ইঞ্জিনিয়ারকে অবগত করা হয়েছে হাসপাতালের বিকল টিউবওয়েলগুলো মেরামত করার জন্য।

তিনি আরও জানান, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তর থেকে আমাদের জানানো হয় হাসপাতালের বিকল টিউবওয়েল গুলো মেরামতের দায়িত্ব গণপূর্ত বিভাগের। তাই আমরা পূনরায় গণপূর্ত বিভাগের প্রকৌশলীকে অবহিত করেছি তারা সমাধানের জন্য সঠিক পদক্ষেপ নিবে বলে আশ্বস্ত করেছেন।

সাব্বির আলম বাবু /ইবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »