করোনার বিধিনিষেধ অমান্য করায় নরওয়ের প্রধানমন্ত্রীর জরিমানা

ইউরোপ ডেস্কঃ আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছেন যে, করোনার নতুন সামাজিক দূরত্বের বিধিনিষেধ লঙ্ঘন করে জন্মদিনের অনুষ্ঠান আয়োজন করায় নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী এরনা সোলবার্গকে জরিমানা করেছে দেশটির পুলিশ।

সমগ্র ইউরোপে করোনা ভাইরাসের নতুন প্রাদুর্ভাবের ফলে বিভিন্ন দেশ বিভিন্ন বিধিনিষেধ আরোপ করছে সংক্রমণের বিস্তার হ্রাস করতে। অনেক ইউরোপিয়ান দেশে বর্তমানে পুনরায় লকডাউনও ঘোষণা করেছে।

এ ছাড়াও জনসমাগম নিষিদ্ধ করেছে বেশীরভাগ দেশ। যা থেকে বাদ পড়েনি ইউরোপের দেশ নরওয়েও।

ভাইরাসটির সংক্রমণ ঠেকাতে জনসমাগম হয় এমন সব অনুষ্ঠান বন্ধ করে দিয়েছে দেশটির সরকার। এমনকি ১০ জনের বেশী মানুষের সমাগম নিষিদ্ধ করেছে দেশটি। তবে সেই আইন অমান্য করেছেন খোদ দেশটির প্রধানমন্ত্রী এরনা সুলবার্গ। যার পরিপ্রেক্ষিতে জরিমানা গুনতে হচ্ছে তাঁকে।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদন অনুযায়ী নরওয়ের পুলিশ প্রধান ওলে সায়েভেরাড শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী সোলবার্গকে ২০ হাজার নরওয়ের ক্রোনা জরিমানার কথা জানান। দশ জনের বেশী লোকের সমাবেশে নিষেধাজ্ঞার আইন থাকা সত্ত্বেও ফেব্রুয়ারীর শেষের দিকে ১৩ জনকে নিয়ে একটি পাহাড়ি রিসোর্টে ৬০তম জন্মদিনের অনুষ্ঠান করেছিলেন নরওয়ের প্রধানমন্ত্রী। এর জন্য গত মাসে ক্ষমাও চেয়েছিলেন দেশটির দুই বারের এই প্রধানমন্ত্রী ।

নরওয়ের পুলিশ প্রধান সায়েভেরাড বলেন, “সবার জন্য আইন এক হলেও আইনের সামনে সবাই সমান নন। সামাজিক দূরত্ববিধি নিয়ে জনমনে আস্থা তৈরীর জন্য প্রধানমন্ত্রীকে জরিমানার এই আদেশ জারি করা যথোচিত সিদ্ধান্ত।”পুলিশ আরও জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী সোলবার্গ ও তার স্বামী সিন্দ্রে ফিনস যৌথভাবে একটি রেস্তোরাঁয় জন্মদিনের এই অনুষ্ঠান আয়োজনের সিদ্ধান্ত নেন। সিন্দ্রে ফিনস অনুষ্ঠান আয়োজনের সমস্ত দায়িত্বও নিয়েছিলেন।’

প্রধানমন্ত্রীর স্বামী করোনাবিধি লঙ্ঘন করেছেন বলে জানালেও তাকে জরিমানা করেনি পুলিশ। এছাড়া যে রেস্তোরাঁয় সোলবার্গের জন্মদিনের অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছিল ওই রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষকেও জরিমানা করা হয়নি। গত মাসে ৬০ বছর বয়সে পা দিয়েছেন এরনা সুলবার্গ। এ উপলক্ষে পরিবারের ১৩ সদস্য নিয়ে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন তিনি। পুলিশ প্রধানের ভাষ্য অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রীকে সামাজিক যোগাযোগ দূরত্ব অমান্য করায় জরিমানার পরিমাণ ২০ হাজার ক্রোনা (নরওয়ের মুদ্রা),যা ইউরো মুদ্রায় €১,৭১৩ ইউরো।

নরওয়ের প্রধানমন্ত্রীকে জরিমানার খবর প্রকাশের পরপরই সংবাদটি ইউরোপ সহ বিশ্বের মিডিয়ায় বেশ আলোচিত হচ্ছে। সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষই আইনের শাসণের এই প্রতিষ্ঠায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

নরওয়েতে পুলিশ যদিও এ ধরনের ঘটনায় বেশীর ভাগ ক্ষেত্রেই জরিমানা করে না। কিন্তু দেশটির প্রধানমন্ত্রীর ক্ষেত্রে তা করা হয়েছে। কারণ, ব্যাখ্যা করতে গিয়ে দেশটির পুলিশ প্রধান বলেছেন, করোনার বিধিনিষেধ আরোপের ক্ষেত্রে সরকারি দায়িত্বের অগ্রভাগে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী কিন্তু তিনিই বিধিনিষেধ অমান্য করেছেন। আর এজন্যই নরওয়ের পুলিশ দেশটির সরকার প্রধানকে জরিমানা করা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

কবির আহমেদ /ইবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »