বরিশালে বিশ্বের সর্ববৃহৎ,বঙ্গবন্ধুর মানব লোগো প্রদর্শন

ভোলা প্রতিনিধি : বরিশালের জন্য অপেক্ষা করছে সর্ববৃহৎ মানব লোগো করার জন্য গ্রিনিজ রেকর্ডের হাতছানি। এটি যদি যথাযথ ভাবে উপস্থাপন করা যায় তবে তা নিঃসন্দেহে বিবেচনার দাবি রাখে। বরিশাল বঙ্গবন্ধু উদ্যানে প্রদর্শন হলো বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীর লোগোর সর্ব বৃহৎ মানব লোগো। বিশাল এ লোগোটিতে ১৬ বর্গফুটের এক একটি স্লাব করে উত্তর দক্ষিন মুখী মোট ৮৪ লাইনে ভাগ করা হয়। প্রতিটি লাইনে স্থাপন করা হয় ১১৪ টি স্লাব। মোট ৯ হাজার ৫৭৬ জনের নির্ধারিত এ পরিমাপ সর্বনিম্ন ৯ হাজার ৮ জনের জন্য নির্ধারন করা হয়।

জন্ম শতবর্ষে জাতির জনকের প্রতি শ্রদ্ধা জ্ঞাপন ছিলো এ আয়োজনের একটি ব্রত। করোনার হঠাৎ বৃদ্ধি, প্রখর রোদ আর বিলম্বের কারনে নির্ধারির সময়ে ৭ হাজার ৭৫২ নেতা কর্মিরা এসে হাজির হন। এতে ৮৪টি লাইনের মধ্যে ৬৮টি লাইন পরিপূর্ণ হয়ে যায়। আর সেখানেই গড়ে যায় রেকর্ড। এদের সমন্বয়ে সৃষ্ট মানব লোগোটি পরিমাপ ছিলো এক লাখ ২৪ হাজার ৩২ বর্গ মিটার। এখন পর্যন্ত অন্য কোন বিশ্ব নেতার প্রতি এতো বিশাল মানব লোগো প্রদর্শনের নিদর্শন মেলেনি।

এর আগে ঢাকায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী ও রবি’র উদ্যোগে আমাদের জাতীয় পতাকার যে মানব লোগো করা হয় তার পরিমাপ ছিলো একলাখ ৭ হাজার বর্গফুট। ধারনা করা হচ্ছে  বরিশালে অনুষ্ঠিত এটি বিশ্বে কোন নেতার সর্ব বৃহৎ মানব লোগো।

এখানে জাতির পিতার চশমার দুটি ফ্রেম ছিলো ২৪শ বর্গফুটের, একটি তিল ছিলো ৪৮ বর্গফুটের, ডান কাধের পরিমাপ ছিলো ৭৬৮ বর্গফুটের। কথা ছিলো প্রদর্শন করা হবে এক লক্ষ ৫৩ হাজার ২১৬ বর্গফুট লোগো। তবে কোন প্রশিক্ষন ছাড়া করা এটিও ছিলো একটি মানব লোগোর রেকর্ড।

বিশাল এ মানব লোগোর প্রদর্শন উপলক্ষে পুরো বরিশাল আজ আনন্দ নগরীতে পরিনত হয়। দূর দুরান্তের উৎসুক জনতা বঙ্গবন্ধু উদ্যানে এসে হাজির হয়।

এদিকে পুরো আয়োজনের সফলতায় সবার প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ। তিনি জানান,স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবং সবার জন্য মাস্ক নিশ্চিত করে এ আয়োজন করা হয়। এদিকে লোগো প্রদর্শনীতে অংশ নেয়ার জন্য সকাল থেকেই জেলার সকল উপজেলা থেকে ছাত্রলীগের সদস্যরা এসে নগরীতে অবস্থান নেয়। আয়োজকরা জানায় লোগো প্রদর্শনীতে অংশ গ্রহনকৃত সাড়ে ৯ হাজার মানুষের মধ্যে অধিকাংশই ছাত্রলীগের সদস্য।

লোগোর অন্যতম আয়োজক ২১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর শেখ সাইয়েদ আহমেদ মান্না বলেন, লোগো প্রদর্শনী সফল ভাবে সম্পন্ন করার জন্য গত এক মাস ধরে প্রস্তুতি নিয়েছি। শেষ পর্যন্ত এত বড় কর্মযজ্ঞ সকলের সহযোগিতায় সফল ভাবে সম্পন্ন হয়েছে। তিনি বলেন, সিটি মেয়র প্রোগ্রাম সফল করা জন্য দিন রাত শ্রম দিয়েছেন। তার দিক নির্দেশনা ও দুরদর্শিতায় এত বড় প্রোগ্রাম আয়োজন করে সুষ্ঠু ভাবে সম্পন্ন করতে সক্ষম হয়েছি। তবে রেকর্ডভুক্ত করার জন্য গিনেজবুকের সাথে যোগাযোগ করা হয়নি বলে জানান তিনি।

কোতয়ালী মডেল থানার ওসি মোঃ নুরুল ইসলাম বলেন, এত বড় লোগো প্রদর্শনীতে নিরাপত্তার বিষয়টি ব্যাপক গুরুত্ব সহকারে দেখা হয়েছে। গত এক সপ্তাহ ধরে মাঠ ও সার্বিক বিষয়ে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে কাজ করেছি। শেষ পর্যন্ত কোন ধরনের অনাকাঙ্খিত ঘটনা ছাড়াই অনুষ্ঠান সম্পন্ন করা সম্ভব হয়েছে।

সাব্বির আলম বাবু /ইবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »