ভোলার চরফ্যাসনে পৌর নির্বাচন শান্তি পূর্ন পরিবেশে ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট চলছে

চরফ্যাসন( ভোলা) থেকে: আজ ২৮ ফেব্রুয়ারী রবিবার প্রশাসনের ব্যাপক উপস্থিতিতে ৫ম ধাপে সারাদেশে ২৯ টি পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে হচ্ছে ।

এর ধারবাহিকতায় চরফ্যাসন পৌর নির্বাচন, সকাল ৮ টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত একটানা ভোট গ্রহন চলবে। দুপুর একটা পর্যন্ত কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই ভোট কেন্দ্র গুলোতে সকাল থেকে উপছে পড়া ভিড় দেখা যায়,তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটার  উপস্থিতি কমে আসে। ভোট কেন্দ্রের আশপাশে কোন ধরনের জটলা না থাকলে বিভিন্ন ওয়ার্ডে কাউন্সিলর  প্রার্থীদের সমর্থকদের কেন্দ্রের বাইরে স্লোগান  দিতে দেখা যায়।

এদিকে ১ নং ওয়ার্ডের  মহিলা ভোট কেন্দ্রের আশে পাশে পাঞ্জাবী  মার্কার বহিরগত লোকজন মহড়া দিতে দেখা গেছে।২ নং ওয়ার্ডে মহিলা পুরুষ ভোটার সংখ্যার কমতি নেই। এখানে কোন প্রার্থীর অভিযোগ ও নেই,  নেই কোন কোলাহল। ১ নং ওয়ার্ডের জোৎস্না নামের একজন ভোটার অভিযোগ করেছেন  ভোট দিয়ে বাসায় যাওয়ার পথে পাঞ্জাবী সমর্থকরা কুৎসিত ভাষা ব্যবহার করেছেন। ভোটাররা উসব মুখর পরিবেশে ভোট দিচ্ছেন । ৯ নং ওয়ার্ডের উটপাখি মার্কার প্রার্থীর সমর্থনে ইতোমধ্যেই ভোট কেন্দ্রের অদূরে বিজয়ের উল্লাস করার সময়ে মোবাইল টিম ও কোষ্টগার্ড ও পুলিশ সদস্যরা তাদেরকে সরিয়ে দিয়েছেন। এই কেন্দ্রে অন্য কাউন্সিলর প্রার্থী করিম মুন্সীর কোন এজেন্ট দেননি।

৩ নং ওয়ার্ডের পাঞ্জাবী ও উট পাখি মার্কার  প্রার্থীরা লাইনে থাকা মহিলা ভোটারদের নিজ নিজ প্রতীক ভোট দিতে কাকুতি মিনতি করতে দেখা গেছে। ৪ নং ওয়ার্ডে হিন্দু ভোটারদের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। ৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীরা মহিলা ভোটার দের এগিয়ে কেন্দ্র আনার প্রতিযোগীতায় মেতে উঠেছেন।৮ নং ওয়ার্ডের ভোটাররা ভোট শেষে রিক্সা যোগে  বাড়ীঘরে ফিরে যাচ্ছেন।

এদিকে নৌকার মেয়র প্রার্থী মোঃ মোরশেদ ৫ নং ওয়ার্ডের করিমজান মহিলা কেন্দ্রে ভোট প্রদান করেছেন। ধানেরশীষ মার্কার প্রার্থী হুমায়ুন কবির সিকদার  ৭ নং ওয়ার্ডের  শামীম মেমোরিয়াল স্কুল কেন্দ্র ভোট দিয়েছেন এবং স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী মোঃ শরীপ হোসাইন  নারিকেল গাছ মার্কায় ৪ নং ওয়ার্ডের আলীয়া মাদ্রাসার কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন। বিএনপি প্রার্থী হুমায়ুন কবির সিকদার বলেছেন শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট চলছে।

জামাল মোল্লা /ইবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »