ইতালিতে করোনার নিষেধাজ্ঞা শিথিলের সময় আসেনি: স্বাস্থ্যমন্ত্রী রবার্তো স্পেরাঞ্জা

ইউরোপ ডেস্কঃ আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা এএফপি জানিয়েছেন, গতকাল বুধবার ২৪শে ফেব্রুয়ারী বিকেলে ইতালির সিনেটে বক্তব্যে দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী রবার্তো স্পেরাঞ্জা উপরোক্ত মন্তব্য করেন। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, ইতালির পরবর্তী জরুরী ডিক্রি অনুযায়ী আগামী ৫ই মার্চের মধ্যে তার বর্তমান করোনাভাইরাস বিধিনিষেধ শিথিল করবে না।।সরকারের বিভিন্ন কেবিনেট মন্ত্রীরা বর্তমানে আসন্ন ডিক্রিতে অন্তর্ভুক্ত হওয়া পদক্ষেপগুলি মূল্যায়ন করছেন। নতুন প্রধানমন্ত্রী মারিও দ্রাঘির নেতৃত্বে নতুন সরকারের অধীনে এটি প্রথম অধ্যাদেশ।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন,ইতালিতে বৃটেনের মিউটেশন ভাইরাসের সংক্রমণের বিস্তার ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়েছে। তাছাড়াও দক্ষিণ আফ্রিকা ও ব্রাজিলিয়ান মিউটেশন ভাইরাসের উপস্থিতিও রয়েছে ইতালিতে। তাই নতুনভাবে আরোপিত এই বিধিনিষেধ বা ডিক্রি আগামী ৫ ই মার্চ থেকে ৬ ই এপ্রিল পর্যন্ত কার্যকর হবে। সরকার কর্তৃক সিনেমা, থিয়েটার, জিম, সুইমিং পুল এবং রেস্তোঁরা পুনরায় চালু করার জন্য ক্রমবর্ধমান চাপ সত্ত্বেও করোনা পরিস্থিতির অবনতি অব্যাহত থাকায় বিধিনিষেধ বলবৎ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

তবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী রবার্তো স্পেরানজা পরবর্তী জরুরী ডিক্রি সংক্রান্ত সামগ্রীর আরও বিস্তারিত জানাননি এবং এতে অতিরিক্ত বিধিনিষেধ অন্তর্ভুক্ত থাকতে পারে কিনা তাও নিশ্চিত করেননি। তবে তিনি বলেছেন, যে মূল আরটি (RT) ট্রান্সমিশন হার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ১ প্রান্তিকর পাসের কাছাকাছি, যার অর্থ “দুর্দান্ত বিচক্ষণতা এখনও প্রয়োজন”।

অর্থাৎ আমরা যদি এখনও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ না করি,তাহলে ইতালিতে মিউটেশন ভাইরাসের ব্যাপক বিস্তৃতি লাভ করবে। করোনার ভাইরাসের এই শেষ পর্যায়ে আমাদের অর্জিত সাফল্য নষ্ট হতে দিতে পারি না। আমাদের প্রতিবেশী অনেক ইউরোপিয়ান দেশ আগামী মার্চ মাস থেকে করোনার বিধিনিষেধ শিথিল করলেও ইতালিতে এই মুহুর্তে বিধিনিষেধ শিথিল করার মত পরিস্থিতি নেই। তিনি বলেন,বিলম্ব সত্ত্বেও ইতালিতে ভ্যাকসিন বা টিকাদানের কর্মসূচি পুরোধমে করার জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আমাদের এই মহামারীটির থেকে বের হওয়ার এটাই এখন এক মাত্র আশার আলো। ভ্যাকসিন প্রতিষ্ঠান সমূহের উৎপাদনজনিত সমস্যার কারণে ইতালিতে আংশিকভাবে ভ্যাকসিন প্রদান কর্মসূচীতে সমস্যা হয়েছিল।

তিনি জানান এখন পর্যন্ত ইতালিতে ১৩ লক্ষাধিক (১,৩ মিলিয়ন) মানুষকে পুরোপুরি(২ ডোজ) টিকা দেওয়া হয়েছে। বর্তমানের বিধিনিষেধযুক্ত সিস্টেমের অধীনে ইতালির অনেক অঞ্চলে রেস্তোঁরা এবং বারগুলি বন্ধ রয়েছে। স্পেরাঞ্জা বলেন, নিয়ম শিথিল না করার ইতালির সিদ্ধান্ত প্রতিবেশী দেশগুলির নীতিমালার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ।”প্রধান ইউরোপীয় দেশগুলি সর্বাধিক কঠোরতার একটি সাধারণ লাইন বেছে নিয়েছে,”একই লাইনের পাশাপাশি আমরা ইতিমধ্যে অঞ্চলগুলির মধ্যে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা বাড়িয়েছি।” আমরা মহামারীটির বিরুদ্ধে লড়াইয়ের শেষ পর্বে এসে কোন ভুল সিদ্ধান্তের মুখোমুখি হলে এটি আমাদের জন্য পুনরায় মারাত্মক পরিণতি ডেকে আনতে পারে।

দেশে পুনরায় করোনার সংক্রমণের বিস্তার বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন জরুরী আইনটি বা ডিক্রিটিকে সংশোধন করার পরিকল্পনা করা হয়েছে। নতুন সংশোধনীতে এই মিউটেশন ভাইরাসের বিস্তারের কারণ চিহ্নিত করা এবং এর বিস্তার রোধে দ্রুত প্রয়োজনীয় পরিকল্পনা গ্রহণ করার কথা রয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী স্পেরেনজা আরও জানান, সার্বিকভাবে ইতালিতে নতুন মিউটেশন ভাইরাসের সংক্রমণ গত ৩ সপ্তাহ যাবৎ ক্রমশ বাড়ছে।

তিনি সর্বশেষ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের করোনার ডাটা অনুসারে জানান, বর্তমানে ইতালিতে বৃটেনের মিউটেশন ভাইরাসের সংক্রমণ দেশের মোট আক্রান্তের শতকরা হিসাবে ১৭.৮% । তিনি আশঙ্কা করে বলেন,এই মিউটেশন ভাইরাসের সংক্রমণ খুব দ্রুত সমগ্র দেশেই ছড়িয়ে পড়ছে। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে যে, কিছু অঞ্চলে করোনার সংক্রমণের শতকরা ৫০%  এই বৃটেনের মিউটেশন ভাইরাস দ্বারা সংক্রান্ত। তিনি সিনেটকে আরও অবহিত করেন যে, এই মিউটেশন ভাইরাসের জন্য ইতালির ৫ টি রিজনের(অঞ্চল) ২৫ স্থানীয় শহর বা অঞ্চলে সবচেয়ে ঝুঁকিপূর্ণ “লাল জোন ” ঘোষণা করা হয়েছে। এই লাল জোন এলাকায় কঠোর বিধিনিষেধ ও ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে, যাতে সংক্রমণের বিস্তারে বাহিরে বেশী ছড়াতে না পাড়ে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী রবার্তো স্পেরানজার সবশেষে বলেন,যেহেতু আমাদের দেশে বৃটেনের মিউটেশন ভাইরাসের ব্যাপক বিস্তার,দক্ষিণ আফ্রিকা ও ব্রাজিলিয়ান মিউটেশন ভাইরাসের উপস্থিতি বিরাজমান তাই এখনও লকডাউন ও কঠোর বিধিনিষেধ অব্যাহত রাখার কোন বিকল্প নাই।

কবির আহমেদ /ইবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »