অস্ট্রিয়ার ফার্মাসীতে (Apotheke)৮ ফেব্রুয়ারী থেকে,বিনামূল্যে করোনা ভাইরাসের পরীক্ষা

ইউরোপ ডেস্কঃ অস্ট্রিয়ান ফার্মেসীগুলি সোমবার ৮ ই ফেব্রুয়ারী থেকে বিনামূল্যে করোনাভাইরাসের অ্যান্টিজেন (দ্রুত) পরীক্ষার জন্য প্রস্তুত রয়েছে বলে জানিয়েছেন,অস্ট্রিয়ান ফার্মাসিস্ট চেম্বারের সভাপতি উলরিক মুরশ-এডলমায়ার। তিনি গতকাল শুক্রবার অস্ট্রিয়ার ফেডারেল চ্যান্সেলারিতে এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন।

অস্ট্রিয়ার বেশ কয়েকটি ফার্মেসী সরকারের একটি পাইলট স্কিমের অংশ হিসাবে সোমবার থেকে সার্স-কোভিট -২ এর জন্য বিনামূল্যে অ্যান্টিজেন দ্রুত পরীক্ষার ব্যবস্থা করেছে। ফ্রি করোনার পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ফার্মেসীগুলির তালিকাও সোমবার থেকে চেম্বার অফ ফার্মাসিস্টের ওয়েবসাইটে পাওয়া যাবে বলে জানান তিনি। ফার্মাসিস্ট চেম্বারের সভাপতি উলরিক মুরশ- এডলমায়ার আরও জানান,সোমবার থেকে অস্ট্রিয়ান সরকার কর্তৃক গৃহীত লকডাউন ব্যবস্থায় শিথিলতার পর পরিকল্পিত স্বাচ্ছন্দ্যের অংশ হিসাবে সোমবার থেকে খোলা হেয়ারড্রেসার এবং অন্যান্য পরিষেবার গ্রাহকরা ফার্মেসীর এই করোনার ফ্রি পরীক্ষার ফলাফলগুলি ব্যবহার করতে পারবেন।

উল্লেখ্য সরকার ৮ ফেব্রুয়ারী থেকে স্কুল এবং দোকানপাট খুলে দিচ্ছেন। তবে এর মধ্যে চুলকাটার সেলুন ও বিভিন্ন ম্যাসেজ থেরাপির প্রতিষ্ঠানে করোনা পরীক্ষার নেগেটিভ সনদ দেখাতে হবে। মুরশ-এডলমায়ারের তথ্যানুসারে অস্ট্রিয়ার প্রায় ২০ শতাংশ ফার্মেসী ইতিমধ্যে দ্রুত পরীক্ষার জন্য অর্থ প্রদানের প্রস্তাব করেছে সরকারের কাছে। তিনি আরও জানান,ভবিষ্যতে করোনার ফ্রি করোনার পরীক্ষার জন্য আরও ফার্মেসীকে যুক্ত করা হবে এবং অবশ্যই পূর্বে নাম রেজিস্ট্রেশন করার প্রয়োজন পড়বে।

ভিয়েনা থেকে প্রকাশিত দৈনিক পত্রিকা Wiener Zeitung জানিয়েছে যে, পেনশনার্স  অ্যাসোসিয়েশন অফ অস্ট্রিয়া (পিভিএ) এবং সিনিয়র সিটিজেনস অ্যাসোসিয়েশন এই পদক্ষেপকে স্বাগত জানিয়েছে এবং সিনিয়র্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ইংগ্রিড  কোরোসেকের বরাত দিয়ে বলেছে যে, এটি সিনিয়র নাগরিকদের “জনজীবনে আরও সক্রিয়ভাবে অংশ নিতে” অনুমতি দেবে। পেনশনার্স অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি পিটার কোস্টেলকা মোবাইল হেয়ারড্রেসার এবং অন্যান্য দৈহিক পরিষেবা সরবরাহকারী গ্রাহকদের ক্ষেত্রে যারা বয়স্ক ব্যক্তিদের বাড়িতে বাসায় যান তাদের ক্ষেত্রে স্ব-পরীক্ষাগুলি স্বীকৃতি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন।

১৫ ই ফেব্রুয়ারী থেকে,করোনা ভাইরাসগুলির জন্য বাড়ির অভ্যন্তরীণ পরীক্ষার জন্য ব্যয়ভারও সরকার প্রদান করবে। শুক্রবার স্বাস্থ্যমন্ত্রী রুডল্ফ আনস্কোবারের সাথে একটি যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে অর্থনীতিমন্ত্রী মার্গারেট শ্রাম্বাক এই ঘোষণা করেছেন। সরকার প্রতিটি অ্যান্টিজেন পরীক্ষার জন্য ফার্মেসীকে €১০ ইউরো করে অনুদান দেওয়া হবে। সোমবার থেকে, যেসব সংস্থাসমূহ এই জাতীয় পরীক্ষার আগ্রহী তারা চেম্বার অফ কমার্সের (WKÖ)ওয়েবসাইটটিতেও রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে।

এদিকে আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনায় আক্রান্ত সনাক্ত হয়েছেন ১,৩৩৩ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ২১ জন। রাজধানী ভিয়েনায় আজ নতুন করে সংক্রমিত সনাক্ত হয়েছেন ১৯৮ জন। অন্যান্য রাজ্যের মধ্যে NÖ রাজ্যে ২৭৩ জন, OÖ রাজ্যে ২৪৬ জন,Steiermark রাজ্যে ২০৮ জন,Kärnten রাজ্যে ১১৪ জন,Tirol রাজ্যে ৯৮ জন,Salzburg রাজ্যে ৯৪ জন,Vorarlberg এবং Burgenland রাজ্যে ৫১ জন করে নতুন করে সংক্রমিত সনাক্ত হয়েছেন।

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪,২২,৫২২ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৭,৯৯৪ জন। করোনার থেকে এই পর্যন্ত আরোগ্য লাভ করেছেন ৪,০০,৮৫১ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ১৩,৬৭৭ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে ক্রিটিক্যাল অবস্থায় আছেন ৩০২ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ১,৫৯২ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

কবির আহমেদ /ইবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »