অস্ট্রিয়ায় করোনার বিধিনিষেধ লঙ্ঘনের কঠোর শাস্তির হুঁশিয়ারি প্রধানমন্ত্রীর

ইউরোপ ডেস্কঃ অস্ট্রিয়ার সরকার প্রধান চ্যান্সেলর (প্রধানমন্ত্রী) সেবাস্তিয়ান কুর্জ আজ এক টুইট বার্তায় বলেন, ৮ ই ফেব্রুয়ারী সোমবার থেকে অস্ট্রিয়ায় সরকার করোনার বিধিনিষেধে কিছুটা শিথিলতা আনলেও অবশিষ্ট বিধিনিষেধ যথাযথ মেনে চলতে অনুরোধ করেছেন। তিনি কিছুটা কঠোরতার সাথে বলেন, বিধিনিষেধ অমান্যকারীদের কঠোর শাস্তি অর্থাৎ অর্থদন্ডের সম্মুখীন হতে হবে।

উল্লেখ্য অস্ট্রিয়ায় দীর্ঘদিন যাবত চলমান তৃতীয় লকডাউনের পর সরকার সোমবার স্কুল, ব্যবসা-বাণিজ্য,দোকানপাট এবং দেহ-বান্ধব পরিষেবা যেমনসেলুন,বিভিন্ন  থেরাপি,ম্যাসেজ ইত্যাদি খোলার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেছেন। তবে এর সাথে সাথে কিছুটা কঠোর বিধিনিষেধও আরোপ করেছেন। যেমন এখন থেকে চুল কাটার সেলুন এবং অন্যান্য দৈহিক ম্যাসেজ প্রতিষ্ঠানে করোনার নেগেটিভ সনদ প্রদর্শন করতে হবে।

সোমবার ৮ ই ফেব্রুয়ারী থেকে বিভিন্ন সুপারমার্কেটে ও অন্যান্য দোকানপাটে অবশ্যই এফএফপি২(FFP2) মাস্ক বাধ্যতামূলক পড়তে হবে। বর্তমান নুতন বিধিনিষেধ অনুযায়ী কেনাকাটার সময় অবশ্যই ২০ স্কোয়ার মিটারের মধ্যে কেবলমাত্র একজন গ্রাহক থাকতে পারবে। অনেক বিদ্যালয়ে শিফট হিসাবে ক্লাশ হবে। যেমন কোন ক্লাশে শিক্ষার্থী ২০ জন হলে তাদেরকে A ও B দুইটি গ্রপে বিভক্ত করে একদিন পর পর ক্লাশ নেওয়া হবে। আগামী সোমবার থেকে ঘর থেকে বের হওয়ার নিষেধাজ্ঞা রাত ৮ টা থেকে ভোর ৬ টা পর্যন্ত করা হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে শুধুমাত্র যাদের বের হওয়ার অনুমতি আছে শুধুমাত্র তারাই বের হতে পারবেন।

সরকার প্রধান চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জ সতর্ক করে বলেন,করোনার বিধিনিষেধ লঙ্ঘনের জন্য জরিমানার শাস্তি এখন পুনরায়  প্রবর্তনের আসল উদ্দেশ্য হল আমাদের দেশে যাতে করোনার সংক্রমণ পুনরায় যেন আকাশচুম্বী না হয়। সেবাস্তিয়ান কুর্জ আরও জানান, দোকানপাটে কেনাকাটার সময় FFP2 মাস্ক ও ২ মিটারের বিধিনিষেধ লঙ্ঘন করলে এখন থেকে জরিমানা বৃদ্ধি করে ৯০ ইউরো করা হয়েছে এবং তা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করবে পুলিশ প্রশাসন। যারা করোনার বিধিনিষেধ লঙ্ঘন করে তারা শুধুমাত্র নিজের জীবনকেই বিপন্ন করে না, সমাজের অন্যান্য মানুষের জীবনকেও বিপন্ন করে তোলে।

এদিকে আজ অস্ট্রিয়ায় নতুন করে করোনায় সংক্রমিত সনাক্ত হয়েছেন ১,৩৮৮ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৩৭ জন। রাজধানী ভিয়েনায় আজ নতুন করে করোনায় সংক্রমিত সনাক্ত হয়েছেন ২৯৫ জন। অন্যান্য রাজ্যের মধ্যে NÖ রাজ্যে ৩০১ জন, Steiermark রাজ্যে ১৮৪ জন, OÖ রাজ্যে ১৭৩ জন,Salzburg রাজ্যে ১৫০ জন, Tirol রাজ্যে ৯৮ জন,Kärnten রাজ্যে ৮৩ জন, Burgenland রাজ্যে ৫৮ জন এবং Voralberg রাজ্যে ৪৬ জন নতুন করে সংক্রমিত সনাক্ত হয়েছেন।

অস্ট্রিয়ায় এই পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৪,২১,১৮৯ জন এবং এই পর্যন্ত মোট মৃত্যুবরণের সংখ্যা ৭,৯৭৩ জন। করোনার থেকে এই পর্যন্ত আরোগ্য লাভ করেছেন মোট ৩,৯৯,৩২৯ জন। বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ১৩,৮৮৭ জন। এর মধ্যে আইসিইউতে আছেন ৩০৬ জন এবং হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন ১,৬১৪ জন। বাকীরা নিজ নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে আছেন।

কবির আহমেদ /ইবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »