জার্মানিতে অ্যাস্ট্রাজেনেকা-অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিন শুধুমাত্র ৬৫ বৎসরের নীচের মানুষের জন্য

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ জার্মানির স্থায়ী ভ্যাকসিন কমিশন (স্টিকো) জার্মানির সরকারকে সুপারিশ করেছে যে,অ্যাস্ট্রাজেনেকা ভ্যাকসিনটি যেন শুধুমাত্র ১৮ থেকে ৬৫ বৎসর বয়সের মানুষের শরীরে প্রয়োগ করা হয়। বৃহস্পতিবার জার্মানির ভ্যাকসিন কমিশন স্টিকো জানিয়েছে,বয়স্ক ব্যক্তিদের উপর এর কার্যকারিতা সম্পর্কিত অপ্রতুল তথ্যের কারণে তারা কেবল ৬৫ বছরের কম বয়সীদের জন্য অ্যাস্ট্রাজেনিকার করোনভাইরাস ভ্যাকসিন ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন।

বৈজ্ঞানিক বিশেষজ্ঞদের প্যানেল জানিয়েছে যে, অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে যৌথভাবে বিকাশযুক্ত এই ভ্যাকসিনটি কেবলমাত্র “উপাত্তের ভিত্তিতে ১৮ থেকে ৬৫ বছর বয়সী ব্যক্তিদের” জন্য ব্যবহার করা উচিত। জার্মানির ভ্যাকসিন কমিশন স্টিকোর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে ৬৫ বৎসর বয়স্ক বা তার বেশী বয়সের ব্যক্তিদের ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা সম্পর্কে বর্তমানে অপ্রতুল তথ্য রয়েছে। এই সীমাবদ্ধতা ব্যতীত, এই ভ্যাকসিনটি ব্যবহারের জন্য উপযুক্ত হিসাবে বিবেচনা করা যায়। ইউরোপীয় ইউনিয়নে (EU) সাধারণ ব্যবহারের জন্য অ্যাস্ট্রাজেনিকা ও অক্সফোর্ডের ভ্যাকসিনটি এখনও অনুমোদন দেওয়া হয়নি তবে ব্লকের ওষুধ নিয়ন্ত্রক ইএমএ শুক্রবার এটি অনুমোদন করার জন্য প্রস্তুত রয়েছে।

স্টিকো বয়স্ক ব্যক্তিদের উপর এই ভ্যাকসিনের ক্লিনিকাল ট্রায়ালগুলির তথ্য বিশদভাবে দেয়নি, তবে দু’জন বিশিষ্ট  জার্মানি সংক্রমণ রোগ বিশেষজ্ঞ সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছে, ৬৫ বৎসরের বেশী বয়সীদের শরীরে এই অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা শতকরা ১০% এর  নীচে। জার্মানির দৈনিক অর্থনৈতিক সংবাদ পত্র “হ্যান্ডেলস ব্ল্যাট” জানিয়েছে, নাম না প্রকাশ করার শর্তে বার্লিনের এক সরকারী সূত্র বলেছে আমরা পরীক্ষা করে দেখেছি যে, ৬৫ বৎসরের বেশী বয়সের মানুষের উপর এই ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা মাত্র আট শতাংশ ছিল।

অন্যদিকে জার্মানির আরেক জনপ্রিয় দৈনিক পত্রিকা Bild ও বেনামী সূত্রের বরাত দিয়ে বলেছে,এই ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা হার  ১০% শতাংশেরও কম। অবশ্য পত্রিকায় এই প্রতিবেদন প্রকাশের পর অস্ট্রাজেনেকার পাশাপাশি জার্মানির স্বাস্থ্যমন্ত্রালয় এই প্রতিবেদন সঠিক নয় বলে প্রত্যাখ্যান করেছেন। জার্মানির স্বাস্থ্যমন্ত্রনালয়ের একজন মুখপাত্র বুধবার বার্লিনে পত্রিকার সমূহের এই প্রতিবেদন প্রত্যাখ্যান করে বলেন, “একটি মিথ্যা দাবি কেবল পুনরাবৃত্তি হওয়ার কারণে সত্য হয়ে ওঠে না।”

জার্মানিতে বৃহস্পতিবার ২৮ শে জানুয়ারী একদিনে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৩,৪৪০ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৭৫৯ জন। জার্মানিতে এই পর্যন্ত করোনার মোট আক্রান্তের সংখ্যা ২১ লক্ষ ৯৩ হাজার ১১৯ জন এবং মোট মৃত্যুবরণ করেছেন ৫৬ হাজার ১১৭ জন। করোনার থেকে এই পর্যন্ত আরোগ্য লাভ করেছেন ১৮ লক্ষ ৮৩ হাজার ৭০০ জন। জার্মানিতে করোনার বর্তমানে আইসিইউতে আছেন ৪,৭৮৭ জন।

কবির আহমেদ /ইবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »