তৃতীয়বারের মত লকডাউনে যাচ্ছে ফ্রান্স

ফ্রান্স সরকারের নীতি নির্ধারকরা এই সপ্তাহেই সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করবেন 

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ প্যারিস ভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা এএফপিকে ফ্রান্স সরকারের মুখপাত্র গ্যাব্রিয়েল আত্তল বলেছেন, করোনার তৃতীয় লকডাউনে যাবার পূর্বে গত এক সপ্তাহ যাবৎ শেষ কিছু বিকল্প ব্যবস্থা নিয়ে গবেষণা করা হচ্ছে। বুধবার ২৭ জানুয়ারী মন্ত্রী পরিষদের বৈঠকের পর সরকারের মুখপাত্র বলেন, ফ্রান্সের উপর তৃতীয় লকডাউন দেওয়ার বিষয়ে আগামী দিনগুলিতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

ফ্রান্সের বৈজ্ঞানিক উপদেষ্টা কাউন্সিলের প্রধান জিন-ফ্রানসোইস ডেলফ্রেসি ফ্রান্সের রাস্ট্রীয় টিভিতে এক সাক্ষাৎকারে বলেছেন যে, ফ্রান্সে পুনরায় একটি তৃতীয় লকডাউন “সম্ভবত প্রয়োজন হবে” এবং সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য এটিই মূল সপ্তাহ। তবে বুধবারের মন্ত্রী পরিষদের বৈঠকের পর সরকারের মুখপাত্র গ্যাব্রিয়েল আত্তল জানান, তাৎক্ষণিকভাবে কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে না। তিনি বলেন, যে প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রন মন্ত্রীদের করোনার বিভিন্ন পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করে তার কাছে রিপোর্ট করার জন্য বলেছিলেন। তবে তিনি আরও বলেছেন যে প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রন গত দুই সপ্তাহের সন্ধ্যা ৬ টা থেকে ভোর ৬ টা পর্যন্ত চলমান কারফিউ বা প্রস্তান নিষেধাজ্ঞার ডাটা দেখতে চেয়েছেন।

 

তিনি বিগত দুই সপ্তাহের কারফিউ জারির ফলে পজিটিভ বা কোন উন্নতি হয়েছে কিনা তা যাচাই করবেন। অবশ্য আত্তল বলেন,যে আগের কারফিউ দেখে মনে হয়েছিল “ভাইরাসের সংক্রমণ কিছুটা কমে এসেছে। কিন্ত বৃটেনের মিউটেশন ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের ফলে এই সামান্য সংক্রমণ কমাতে আশ্বস্ত হওয়ার পক্ষে যথেষ্ট নয়। পূর্ব ফ্রান্সের কিছু অঞ্চলে পূর্বে থেকে কারফিউ জারি করা হয়েছিল। অবশ্য পরবর্তীতে ১৬ জানুয়ারী শনিবার থেকে সমগ্র ফ্রান্সে সন্ধ্যা ৬ টা থেকে ভোর ৬ টা পর্যন্ত কারফিউ জারি করা হয়েছে যা এখনও চলমান আছে।

একটি সরকারী সূত্র সংবাদ সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছে যে,দুই সপ্তাহের কারফিউর ডাটা বিশ্লেষণের পর আগামী শনিবার তৃতীয় লকডাউনের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। সবশেষে মুখপাত্র আত্তল বলেন যে,প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রন বিভিন্ন বিকল্প উপায় গুলির উপর সম্পূর্ণ বৈজ্ঞানিক ও অর্থনৈতিক প্রভাব নিয়ে গবেষণার ফলাফল পর্যালোচনা করে দেখবেন। সম্ভবত কঠোর লকডাউন  দিকে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। তবে আগামী দিনগুলিতে সংসদ সদস্য এবং বিভিন্ন ইউনিয়নগুলির সাথে আরও আলোচনার পর চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবেন।

বুধবার ২৭ শে জানুয়ারী ফ্রান্সে করোনায় নতুন করে সংক্রমিত সনাক্ত হয়েছে ২৬,৯১৬ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছে ৩৫০ জন। ফ্রান্সে এই পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৩১ লক্ষ ৬ হাজার ৮৫৯ জন এবং মোট মৃত্যুবরণের সংখ্যা ৭৪ হাজার ৪৫৬ জন। ফ্রান্সে এই পর্যন্ত কয়েক শতাধিক বাংলাদেশী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেক বাংলাদেশীর করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণের কথাও জানা গেছে।

কবির আহমেদ /ইবি টাইমস

 

    

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »