পদত্যাগ করলেন ইতালির প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ্প কন্তে

ইতালিঃ আজ মঙ্গলবার ইতালির প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ্প কন্তে ইতালির প্রেসিডেন্ট সারজেও মাত্তারেল্লা’র নিকট তার পদত্যাগ পত্র জমা দিয়েছেন এবং তা গ্রহণ করা হয়েছে। পদত্যাগ পত্র জমা দিয়ে তিনি সাংবাদিকদের জানান,ইতালির রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক স্বার্থে তিনি পদত্যাগ করেছেন।

ইতালির রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, প্রধানমন্ত্রী হিসাবে দ্বিতীয় মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই জিউসেপ্প কন্তে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারনে পদত্যাগ করতে বাধ্য হলেন। তার পদত্যাগের ফলে ইতালির বর্তমান বহুদলীয় কোয়ালিশন সরকার ভেঙ্গে গেল৷ এখানে উল্লেখ্য যে, গত ১৩ জানুয়ারী ইতালির বহুদলীয় কোয়ালিশন সরকার থেকে শরীক দল ইতালিয়া ভিভা বের হয়ে গেলে  সরকার পরিচালনায় অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়। গত সপ্তাহে সিনেটে আস্থাভাজন ভোটে বিরোধী অনেক সিনেটের ভোটে সরকার সাময়িক টিকে গেলেও সরকারের পরিসীমা বৃদ্ধির জন্য রাষ্টপতির সাথে আলোচনা করে সময় নিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী কন্তে কিন্তু অনেক চেষ্টা করেও শেষ পর্যন্ত বর্তমান কোয়ালিশন সরকারকে টিকিয়ে রাখতে পারলেন না তিনি।

ইতালির সংবিধান অনুযায়ী দেশ পরিচালনা করতে যে সংখ্যক সিনেটরের সমর্থন প্রয়োজন তা সংগ্রহ করতে ব্যর্থ হয়েছেন দলহীন ইতালির প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ্প কন্তে। ফলে তার পদত্যাগ করা ছাড়া আর কোন উপায় ছিল না। ইতালির বর্তমান রাজনৈতিক সঙ্কট উত্তরণের জন্য আগামীকাল বুধবার ২৭ জানুয়ারী প্রেসিডেন্ট সারজেও মাত্তেরেল্লা ইতালির রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দের সাথে অন্তবর্তী সরকারের রূপরেখা নিয়ে আলোচনা করবেন ৷ উক্ত আলোচনা সভায় জুসেপ্পে কন্তেকে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দায়িত্ব পালনের আহ্বান জানানো হবে বলে ইতালির সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়েছে।

ইতালির সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়েছে,গত সপ্তাহে করোনাভাইরাস সঙ্কট ও অর্থনৈতিক মন্দার পরিপ্রেক্ষিতে সরকারী অব্যবস্থাপনার অভিযোগে বহুদলীয় কোয়ালিশন সরকার থেকে ছোট শরিক দল সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাত্তিও রেনজির নেতৃত্বাধীন ইতালিয়া ভিভা পার্টি জোট থেকে বেরিয়ে গেলে জুসেপ্পে কন্তে পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ সিনেটের সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারান। রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন,ইতালির প্রেসিডেন্ট সংসদীয় দলগুলির সাথে সম্ভাব্য আলোচনার পর কোনও প্রাতিষ্ঠানিক ব্যক্তিকে অনুসন্ধানমূলক আদেশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। প্রধানমন্ত্রীর পদত্যাগের পরে এবং প্রেসিডেন্টের হাতে নতুন সরকারের শপথ না হওয়া পর্যন্ত বিদায়ী সরকার বর্তমান রাস্ট্র পরিচালনার জন্য যার যার পদে আরও কিছুদিন থাকতে পারবেন।

সদ্য পদত্যাগকারী প্রধানমন্ত্রী জিউসেপ্প কন্তে তার তৃতীয় সরকার গঠনের জন্য ইতালির প্রেসিডেন্ট সারজেও মাত্তারেল্লা’র নিকট একটি ম্যান্ডেট পাওয়ার আশা করছেন। তবে তার সরকারের কোয়ালিশন দল সমূহ পপুলিস্ট ফাইভ স্টার মুভমেন্ট, সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটস (পিডি / পার্টিটো ডেমোক্র্যাটিকো) এবং বামপন্থী ছোট দল লিবারি ই উগুয়ালি (লেইউ / ফ্রি এবং ইকুয়াল) তার পক্ষে এখন আর পর্যাপ্ত নয় বলে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা জানিয়েছেন।

ইয়াসমিন পুতুল /ইবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »