অস্ট্রিয়া প্রধান বিরোধীদল,বর্তমান সরকারের সাথে বৃহৎ কোয়ালিশন করার আগ্রহ প্রকাশ !

ইউরোপ ডেস্কঃ আজ অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনার ফ্রি টুডে (Heute) পত্রিকার সাথে এক সাক্ষাৎকারে ভিয়েনার রাজ্য গভর্নর ও সিটি মেয়র মিখাইল লুডভিগ(SPÖ) এই আগ্রহের কথা জানান।

অস্ট্রিয়ার ক্ষমতাসীন দল অস্ট্রিয়ান পিপলস পার্টি (ÖVP) বর্তমানে অস্ট্রিয়ান Green পার্টির সাথে মিলে কোয়ালিশন সরকার গঠন করেছেন। তবে ইদানিং বিভিন্ন বিষয়ে ÖVP ও Green এর মধ্যে প্রায়ই মতবিরোধ দেখা দিচ্ছে। আর অন্যদিকে ইদানিং বিভিন্ন সরকারী সিদ্ধান্তে প্রধান বিরোধীদল SPÖ সরকারকে সমর্থন ও সহযোগিতা করতে দেখা যাচ্ছে। অস্ট্রিয়ার রাজনৈতিক বিশ্লেষকরাও বলছেন অস্ট্রিয়ার ইতিহাসে দীর্ঘ সময়ের বৃহৎ দুই কোয়ালিশন সরকারের দল SPÖ ও ÖVP এর মধ্যে মত পার্থক্য অনেকটাই কমে এসেছে।

পত্রিকাটি মেয়র মিখাইল লুডভিগকে সরাসরি প্রশ্ন করেন,সরকার প্রধান চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জের সাথে আপনার ভাল সম্পর্ক ও নানান বিষয়ে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপকে সমর্থন করাকে SPÖ সরকারের সাথে কোয়ালিশনে যাওয়ার ঈঙ্গিত বহন করছে,কি না ? জবাবে মেয়র মিখাইল  লুডভিগ বলেন,আমাদের অনেক ক্ষেত্রে ফেডারাল সরকারের চেয়ে আলাদা অবস্থান আছে এবং আমরা তাও ছাড়ছি না। তবে SPÖ সর্বদা রাষ্ট্রের স্বার্থকে সর্ব প্রথম সমর্থন করে। কাজেই বর্তমানে রাষ্ট্রের এই ক্রান্তিকালে ফেডারেল সরকারের সাথে দ্বন্দ্ব দায়িত্বজ্ঞানহীন।

গত সপ্তাহান্তে সরকার,রাজ্য গভর্নর এবং SPÖ এর মধ্যে একটি চমৎকার সমন্বয়ের পর থেকে অস্ট্রিয়ার রাজনীতির গতিপথ পরিবর্তনের ঈঙ্গিত দিচ্ছে। এই বৈঠকে গ্রীণ পার্টির স্বাস্থ্যমন্ত্রী রুডল্ফ আনস্কোবারের চেয়ে মেয়র মিখাইল লুডভিগকে সরকারের নীতির সাথে বেশী একাত্মতা করতে দেখা গেছে। পত্রিকাটির এক প্রশ্নের জবাবে অনেকটাই সরকারে যাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করে মেয়র বলেন, SPÖ একটি ঐতিহ্যবাহী পুরাতন রাজনৈতিক দল হিসাবে বর্তমানের এই কঠিন পরিস্থিতিতে দেশের জন্য দায়িত্ব নেওয়ার ব্যাপারে তার আগ্রহ প্রকাশ করছে।

তিনি বলেন,আমাদের দলের নীতি সবসময়ই দেশের জন্য গঠনমূলক। ভিয়েনার নির্বাচনী প্রচার একটি কঠিন মোড় ছিল। প্রথম লকডাউন চলাকালীন আমরা ফেডারাল সরকারের সমস্ত সিদ্ধান্তকে বৃহতভাবে সমর্থন করি। আমরা সরকার প্রধান চ্যান্সেলর সেবাস্তিয়ান কুর্জের সাথে বিভিন্নভাবে দেখা করেছি। আরেক প্রশ্নের জবাবে মেয়র মিখাইল লুডভিগ বলেন, না,অস্ট্রিয়ায় খুবই দ্রুত সরকার পরিবর্তন হচ্ছে না। তবে যদি সরকার ব্যর্থ হয় বা কোয়ালিশন শরীক দলের সাথে মতবিরোধ জটিল আকার ধারণ করে তাহলে হয়তোবা সরকার ভেঙ্গে গেলে পুনরায় নতুন নির্বাচনের মাধ্যমেই পুনরায় সরকার গঠিত হতে পারে,অন্যথায় নয়।

অস্ট্রিয়ার রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, কঠোর রক্ষণশীল FPÖ এর সাথে ÖVP এর বিচ্ছিন্নতার পর ÖVP ও SPÖ তাদের ঐতিহ্যবাহী জোটের দিকে ক্রমশই অগ্রসর হচ্ছে। ধারণা করা হচ্ছে অদূর ভবিষ্যতে অস্ট্রিয়ায় প্রধান বড় দুই দলের মধ্যে কোয়ালিশন সরকার গঠন হওয়ার সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে।

কবির আহমেদ/ ইউবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »