অস্ট্রিয়ায় ছড়িয়ে পড়ছে মিউটেশন ভাইরাস B117

নিউজ ডেস্ক: অস্ট্রিয়ার সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করেছেন, অনুমানের চেয়ে বেশী পরিমানে বৃটেনের মিউটেশন ভাইরাসের উপস্থিতি রয়েছে অস্ট্রিয়ায়।

অস্ট্রিয়ান সংবাদ সংস্থা এপিএ জানিয়েছে, অস্ট্রিয়ার Tirol রাজ্যের শীতকালীন স্কি এর জন্য বিখ্যাত Kitzbühel জেলায় প্রায় ১৭ জনের শরীরে এই ভাইরাসের উপস্থিতি সনাক্ত হয়েছে। তবে সরকারের তরফ থেকে এ ব্যাপারে এখনও কিছু বলা হয় নি।

সংবাদ সংস্থাটির খবরে আরো বলা হয়েছে, রাজ্যটির Kufstein জেলায়ও এই পরিবর্তিত ভাইরাসের উপস্থিতির আশঙ্কা করছেন বিশেষজ্ঞরা। একটি সূত্র জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হওয়া বেশিরভাগই বৃটেনের নাগরিক। এরা স্কি ইন্সট্রাক্টর প্রশিক্ষণ কোর্সের অংশ হিসাবে তারা Tirol  রাজ্যে অবস্থান করছেন। বিমান চলাচল স্থগিত হওয়ার আগেই অস্ট্রিয়ায় এসেছেন তারা।

উল্লেখ্য যে, ব্যাপক সমালোচনার মুখে সরকার গত ২৪ ডিসেম্বর থেকে কিছু বিধিনিষেধ দিয়ে আল্পস পর্বতাঞ্চলে শীতকালীন স্কি খেলার অনুমতি দিয়েছে। তবে অভিযোগ উঠেছে এইসব বিধিনিষেধ যথাযথ মানা হচ্ছে না। Tirol রাজ্যের করোনার টাস্ক ফোর্সের প্রধান এলমার রিজোলি বলেন, স্কি শিক্ষার কার্যক্রম কঠোর লকডাউন ও বিমান যোগাযোগ স্থগিত হওয়ার কারণে পুরোপুরি শুরু করা হয়নি। এটিকে সৌভাগ্য বলচেন তিনি। স্কি কার্যক্রমে বৃটেনসহ আরও অনেক দেশ থেকে শিক্ষার্থীদের অস্ট্রিয়া আসার কথা ছিল।

এদিকে, সংক্রমন ছড়িয়ে পড়ার পর অবশেষে রাজ্যের Kitzbühel জেলা কর্তৃপক্ষ শনিবার সমস্ত স্কি ইন্সট্রাক্টরকে তিনটি স্টাফ আবাসে পরীক্ষা করার ব্যবস্থা করেছে।

অস্ট্রিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী রুডল্ফ আনস্কোবার (গ্রিনস) জানান, ফেডারেল সরকার Tirol রাজ্যের Kitzbühel জেলার Jochberg স্কি ফিল্ড এলাকার সবার করোনার PCR পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, রাজ্যের হেলথ কাউন্সিলর বার্নহার্ড তিলগ (ÖVP) কে বলা হয়েছে সরকার Gemeinde Jochberg সাধারণ মানুষের করোনা PCR টেস্ট বিনামূল্যে করবে। যাতে সবাই পরীক্ষায় উৎসাহিত হয়।

তিনি আরও জানান, এই এলাকায় প্রথম এই ভাইরাসের হালকা উপস্থিতির সনাক্ত গত ৩ জানুয়ারীর পর থেকে শুরু হয়েছে। রাজ্য প্রশাসনের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার প্রায় ১,৫০০ জনের PCR টেস্টের জন্য নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। পরীক্ষার ফলাফল আসতে কয়েকদিন সময় লাগবে। বুধবার (১৩ জানুয়ারি) এখানকার স্থানীয় একটি হলে নমুনা নেয়ার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

অস্ট্রিয়ায় লন্ডন দূতাবাস থেকে সংবাদ সংস্থা এপিএ কে বলা হয়েছে, যেহেতু অস্ট্রিয়ার সাথে বর্তমানে বৃটেনের বিমান চলাচল স্থগিত আছে তাই বৃটিশ নাগরিকদের বিকল্প পথে ফেরৎ নেওয়ার ব্যবস্থা করা যেতে পারে। তিনি তাদেরকে বিশেষ ব্যবস্থায় প্রথমে ফ্রান্স এবং সেখান থেকে বৃটেনে ফেরত নেয়া হতে পারে। বর্তমানে অস্ট্রিয়া সরকার বৃটেনের সাথে বিমান চলাচল স্থগিত ২৪ জানুয়ারী পর্যন্ত বর্ধিত করেছে। সংবাদ সংস্থা এপিএ আরও জানায়, অস্ট্রিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন,আগামী শুক্রবার থেকে অস্ট্রিয়ার বাহির থেকে অস্ট্রিয়ান নাগরিকদের অস্ট্রিয়ার প্রবেশের পূর্বে নাম নিবন্ধন করতে হবে এবং ভ্রমণের ইতিহাস জানাতে হবে।

কবির আহমেদ/ইউবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »