জার্মানির লকডাউন এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত বর্ধিত হতে পারে: অ্যাঞ্জেলা মের্কেল

নিউজ ডেস্ক : জার্মানির বহুল প্রচারিত দৈনিক পত্রিকা Bild Zeitung সরকারী সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে, দেশটির প্রধান  চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মের্কেল জার্মানিতে বৃটেনের করোনার মিউটেশন অর্থাৎ পরিবর্তিত ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় চলমান লকডাউনটি আরও আট থেকে দশ সপ্তাহের জন্য বাড়াতে চাচ্ছেন। চলমান লকডাউনটি ৩১ জানুয়ারী শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

পত্রিকাটি জানিয়েছেন, জার্মানির চ্যান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মের্কেল তার দলের সদস্যদের জানিয়েছে যে, করোনার সংক্রমণের বিস্তার দ্রুত হ্রাস না পেলে চলমান কঠোর লকডাউনটি আগামী ইস্টার্ন অর্থাৎ এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত বর্ধিত করা হবে।

জার্মানির দৈনিক বিল্ডের মতে, মার্কেল তার রক্ষণশীল দলের সদস্যদের  জানিয়েছেন, নতুন  কোভিড -১৯ রূপটি সম্পর্কে তিনি গুরুতর উদ্বিগ্ন। তিনি বিশ্বাস করেন যে, এখনই সতর্ক না হলে ভয়ঙ্কর রুপ ধারণ করতে পারে।

জার্মানির সরকারের কোয়ালিশন দল খ্রিস্টান ডেমোক্র্যাটস এবং ক্রিশ্চান সোশ্যাল ইউনিয়নের অভ্যন্তরীণ বৈঠকে তিনি বলেন,  “আমরা যদি এই ব্রিটিশ ভাইরাসটি নিয়ন্ত্রণে না রাখি তবে ইস্টারে আমাদের দেশে আক্রান্তের সংখ্যা দশগুণ বেড়ে যাবে। অ্যাঞ্জেলা মের্কেল বলেন, তাই চলমান লকডাউনটি আরও ৮ থেকে ১০ সপ্তাহ বাড়ানো উচিত। যদিও এসব বিষয় অস্বীকার করেছেন বৈঠকে অংশ নেয়া ৩ সদস্য। লন্ডন ভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে তারা বলেছেন,  মোর্কেল স্পষ্টভাবে বর্তমান ব্যবস্থাগুলি বাড়ানোর বিষয়ে কথা বলেননি এবং কোনো ধরণের আশঙ্কা প্রকাশ করেননি।

এদিকে, ক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ড রাজ্যের জন হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের করোনার আন্তর্জাতিক ডাটা সংরক্ষণ অনুযায়ী জার্মানিতে আজ করোনায় নতুন করে সংক্রমিত সনাক্ত হয়েছেন ৫,০২৯ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন ৩৬৮ জন। জার্মানিতে এই পর্যন্ত করোনায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১৯,৪৬,১০৬ জন এবং মৃত্যুবরণ করেছেন মোট ৪২,৪৬৫ জন। করোনার থেকে এই পর্যন্ত আরোগ্য লাভ করেছেন ১৫,৭০,০০০ মানুষ। জার্মানিতে বর্তমানে করোনার সক্রিয় রোগীর সংখ্যা ৩,৩৩,৬৪১ জন। এর মধ্যে ক্রিটিক্যাল অবস্থায় আইসিইউতে আছেন ৫,৪১৪ জন। জার্মানিতে এই পর্যন্ত কয়েক শতাধিক প্রবাসী বাংলাদেশী করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন এবং ১০ জন মৃত্যুবরণ করেছেন বলে নিচ্চিত করেন আমাদের জার্মান প্রতিনিধি ।

কবির আহমেদ/ইউবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »