অস্ট্রিয়ায় নিষেধাজ্ঞা না মেনে রেস্টুরেন্ট খোলায় ৪৫ জনকে জরিমানা

রেস্টুরেন্টের মালিকের জরিমানা হতে পারে সর্বোচ্চ €৩০.০০০ ইউরো


ভিয়েনা: অস্ট্রিয়ান  সংবাদ সংস্থা এপিএ জানায়,সোমবার Oberösterreich রাজ্যের রাজধানী Linz এ একটি কফি রেস্টুরেন্ট লকডাউনের নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে খুলে এবং মুহুর্তের মধ্যেই সেটি লোকে লোকারন্য হয়ে যায়। সাথে সাথেই খবর পৌছে যায় পুলিশ প্রশাসনের কাছে। পরবর্তী পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তারা রাজ্য প্রশাসনের সাথে আলোচনার পর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট নিয়ে হাজির হন উপরোক্ত রেস্টুরেন্টটিতে।

এপিএ জানায় পুলিশ ও ম্যাজিস্ট্রেট এসে উক্ত রেস্টুরেন্টে ৪৫ জন অতিথি দেখতে পান। উপস্থিত ম্যাজিস্ট্রেট তখন ৪৫ জনের প্রত্যেককে €১,৪৫০ ইউরো করে জরিমানা করে রসিদ ধরিয়ে দেন। রেস্টুরেন্টের মালিকের বিরুদ্ধে ম্যাজিস্ট্রেট বাদী হয়ে  সরকারী আইন অমান্য করায় মামলা দায়ের  করেন। সরকারী আইন অনুযায়ী লকডাউনের সময় কোনও রেস্টুরেন্ট বা প্রতিষ্ঠান খুললে সর্বোচ্চ অর্থদন্ড €৩০,০০০ হাজার ইউরো করা হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে এপিএ আরও জানায় অভিযুক্ত রেস্টুরেন্টের মহিলা মালিক ইতিপূর্বে করোনা বিরোধী বিক্ষোভে অংশগ্রহণ করেছেন এবং সেখানে সরকারী আইন অমান্য করে রেস্টুরেন্ট খোলার অঙ্গীকার করেছিলেন। তদনুসারে, দুপুরে দর্শনার্থী এবং সাংবাদিকরা Linz শহরের পুরাতন এলাকায় অবস্থিত রেস্টুরেন্টটিতে জড়ো হন। রেস্টুরেন্টের সামনে প্লাকার্ডে লেখা ছিল “একজন মা হিসাবে আমি করোনার বিধি-নিষেধ মানি না,আমি আর আমার সন্তানের ঠিকমত চাহিদা পুরন করতে পারছি না।” সন্ধ্যার কিছু পূর্বে মাস্ক বিহীন অতিথিরা রেস্টুরেন্টে আসতে শুরু করে এবং করোনার সকল প্রকার বিধিনিষেধ উপেক্ষা করে তারা রেস্টুরেন্টে গাদাগাদি করে বসেন। পরবর্তীতে প্রশাসনের পক্ষ থেকে করোনার লকডাউনের বিধিনিষেধ সকলকে কঠোরভাবে অনুসরণের জন্য সতর্ক করা হয়েছে।

কবির আহমেদ/ইউবি টাইমস

EuroBanglaTimes

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Translate »